মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:৫৫ পূর্বাহ্ন

রাত ১০টার পর জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে গেলেই ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম: বুধবার, ৩১ মার্চ, ২০২১
  • ১৯০ বার পাঠিত
রাত ১০টার পর জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাইরে গেলেই ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

মো: আমিন আহমেদ: করোনাভাইরাসের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন সংক্রমণরোধে সরকারের ১৮ দফার মধ্যে এক দফা রাত ১০টার পর অপ্রয়োজনে ঘরের বাইরে যাওয়া নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ও সিভিল প্রশাসন মাঠে থাকবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

গেল সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে ১৮ দফা নির্দেশনা দেওয়া হয়। এর মধ্যে ১১ দফায় বলা হয়, অপ্রয়োজনীয় ঘোরাফেরা/আড্ডা বন্ধ করতে হবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাত ১০টার পর বাইরে বের হওয়া নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। এ বিষয়ে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের বলেন, রাত ১০টার পরে বাইরে বের হওয়ার বিষয়টা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। আমরা অবশ্যই রাস্তাঘাটে নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা করব। আমাদের পুলিশ প্রশাসন এখানে কাজ করবে। জরুরি কাজ ছাড়া অপ্রয়োজনে কেউ যাতে বাইরে না যায় সেটি আমরা নিশ্চিত করব। মোবাইল কোর্ট চলমান।

ফরহাদ হোসেন বলেন, আমরা লক্ষ করছি যে, বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কয়েকটি ঢেউ এসে গেছে। বাংলাদেশের এই ঢেউটাকে আমরা দ্বিতীয় ঢেউ বলতে পারি। কারণ আমরা আশঙ্কা করেছিলাম শীতের সময় অনেকটা বেড়ে যাবে। কিন্তু আমাদের সতর্কতার কারণে সেটি সম্ভব হয়নি। হঠাৎ করে এখন গ্রীষ্ম আসছে এবং বেড়ে যাচ্ছে।

আগামী১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ নিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা সমস্ত জনসমাগম সীমিত করব। যেখানে উচ্চঝুঁকিপূর্ণ এলাকাগুলো পুরোপুরি নিষিদ্ধ থাকবে।

চলমান একুশের বইমেলা নিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনেই সেটা করতে হবে। করেনা প্রতিরোধ করতে পারি যদি মাস্ক পরি, শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে পারি এবং হাত ধুই। এটি কিন্তু অজানা কিছু না। আমাদের এখন অনেক অভিজ্ঞতা।

মসজিদসহ সব ধর্মীয় উপাসনালয়ে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন নিশ্চিত করতে হবে বলে সরকারের ১৮ দফায় উল্লেখ রয়েছে। এ বিষয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা চাইব যে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যাতে মসজিদগুলোতে নামাজ পড়তে আসেন। সে ক্ষেত্রে সবাই অবশ্যই যেন সতর্কতা অবলম্বন করেন এবং মাস্ক পরে নামাজ পড়তে আসেন। বাসা থেকে অজু করে আসতে পারলে ভালো হয়, তাতে আমরা নিজেদের সুরক্ষায় রাখতে পারব। প্রস্তুতি নিয়ে আসতে হবে যাতে করে সংক্রমিত না হই হোটেল-রেস্তোরাঁ গুলোতে ধারণক্ষমতার ৫০ ভাগের বেশি মানুষের প্রবেশ বন্ধ করতে হবে বলে নির্দেশনায় বলা রয়েছে।

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ব্যবসা-বাণিজ্য আমাদের চলমান থাকবে। যাতে আমরা স্বাস্থ্যঝুঁকির মধ্যে না যাই সেদিকটা মানতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

More News Of This Category
সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © 2020-2021 CNBD.TV    
IT & Technical Supported By: NXGIT SOFT
themesba-lates1749691102